সুনামগঞ্জের ছাতকের জমিদার বাড়ীর গল্প কালের সাক্ষী হয়ে থাকবে


সুনামগঞ্জ প্রতিনিধি - সুজন তালুকদার

কালের সাক্ষী হয়ে এখনো ঝরাজীর্ণ অবস্থায় দন্ডায়মান ছৈলা(শাষন) গ্রামের "নইদ্যাবাসী"র জমিদার বাড়ি কালের সাক্ষী হয়ে এখনো ঝরাজীর্ণ অবস্থায় দন্ডায়মান "নইদ্যাবাসীর" পরিত্যাক্ত জমিদার বাড়ি । এই বাড়িটির ইতিহাস খুব'ই সু-প্রাচীন এবং গৌরব উজ্জল । সত্যি'ই কথা বলতে যাঁর প্রতিটি শৈল্পিক নিঃদর্শন মুরব্বিয়ানদের নানান গল্পের খোরাক । বাড়িটির অবস্থান, ছাতক উপ-জেলাধীন ছৈলা আফজলাবাদ ইউনিয়নের ছৈলা(শাষন) গ্রামে। লোক মুখে ইহা "নইদ্যাবাসীর" জমিদার বাড়ি নামে সু- পরিচিত।আমি যখন ছোট ছিলাম তখন "ছৈলা গ্রামে-র ইতিকথা" নিয়ে দাদা-দাদি, চাচা এবং বড় ভাইদের নানা বিষয়ে গল্প শোনার তাগিদে পশ্ন করলে'ই তারা একবাক্যে "নইদ্যাবাসী"র জমিদার বাড়ির গল্প জোড়ে দিতেন। যেমন ওই গ্রামে "নইদ্যাবাসী"নামে বড় এক জমিদার ছিল যার নয়-শত নিরান্নব্বই হাল জমি সহ প্রচুর সহায় সম্বল ছিলো, ছবিতে উল্লেখিত বাড়িটি তৈরি করে ছিলো দুধ ও মাঠা দিয়ে, এখানে পানির কোন ব্যবহার ছিলোনা, লোক লস্কর যে কত ছিলো তার সঠিক হিসাব কেউ কোন দিন দিতে পারেনি "। এই সব গল্প কান পেতে শোনতে শোনতে এক সময় ঘুমিয়ে যেতাম।
আজ যখন এই বাড়িটির পাশ দিয়ে যাচ্ছিলাম তখন মনে পরে গেলো আগেকার দিনের স্মৃতিময় গল্পের কাহিনী । প্রতিবেশি একজনকে ডেকে খোঁজ নিয়ে জানলাম বাড়ির বর্তমান উত্তারাধীকার গনের আর্থিক ও পারিপার্শ্বিক হাল অবস্থার কথা । এখান থেকে আপনি-আমি তথা প্রত্যেক মানুষের শিক্ষা নেওয়া উচিত । কারণ, টাকা পয়সা এবং ধন সম্পদ দুনিয়াতে কারো চিরস্থায়ী নয় । আজকে আছে - কালকে নাও থাকতে পারে। তাদেরও বর্তমান অবস্থা এর ব্যতিক্রম নয় । তবোও আবেগপ্রবন হয়ে মনের তাগিদে প্রিয় অনুজ সমীরণ চন্দের সহযোগীতায় বাড়িটি ক্যামেরা বন্দি করে নিলাম নিজের মোবাইল ফ্রেমে । তথ্য সংগ্রহ করতে সহায়তা করেছেন ওই গ্রামের সন্তান নেছার আহমদ নেছার।

SHARE THIS

0 Comments:

মতামতের জন্য ধন্যবাদ।