কুমিল্লায় হিন্দু মেয়ের অপহরণে মুসলিম ছেলে


এম‌ডি ইকবাল - কু‌মিল্লা প্রতিনিধি

    কুমিল্লায় এক সংখ্যালগু হিন্দু পরিবারের কলেজ পড়ুয়া মেয়েকে অপহরনের ঘটনা ঘটেছে। এ ঘটনায় থানায় একটি মামলা হয়েছে। মামলা ও পারিবারিক সূত্রে জানা যায়, জেলার নাঙ্গলকাট উপজেলার রায়কোট উত্তর ইউনিয়নের কুকরিখীল গ্রামের খোকন চন্দ্র দাসের মেয়ে (সদ্য এইচ এসসি পাশ) পুর্ণিমা রানী দাস গত ১৯ জুলাই পরীক্ষার ফলাফল জানার জন্য বলে বাড়ী থেকে বাঙ্গড্ডা বাদশা মিয়া স্কুল এন্ড কলেজের উদ্যোশে বের হয়ে যায়। পরে ওই দিন সে আর বাড়ী ফিরে না যাওয় তার পরিবার অনেক খোজখুজি করেও মেয়েকে কোথাও না পেয়ে গত ২১ জুলাই থানায় একটি সাধারণ ডায়রি করে। যাহার নং: ৭৩০।
পরে অজ্ঞাত স্থান থেকে মোবাইলে উপজেলার ভলুয়াপাড়া গ্রামের শহীদুল ইসলামরে ছেলে মহিন উদ্দিন (২১) মেয়ের পরিবারকে জানায়, পুর্ণিমা আমার হেফাজতে আছে। এটা নিয়ে বাড়াবাড়ি করবেন না। যদি করেন আপনাদের পরিবারের বড় ধরনের ক্ষতি করা হবে বলে হুমকি দেয়।
এরই সূত্র ধরে খোকন চন্দ্র দাস বাদী হয়ে ২৬ জুলাই নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনে ৭/৩০ ধারা মতে মহিন উদ্দিন পিতা শহীদুল ইসলাম, সাইফুল ইসলাম, পিতা ঐ, সামছুন্নাহার স্বামী জহিরুল ইসলাম সর্ব সাং ভুলুয়াপাড়া ও অজ্ঞাত ২/৩ জনকে আসামী করে নাঙ্গলকোট থানায় মামলা করে।
এ বিষয়ে সোমবার থানার উপপরিদর্শক (এস আই) মিজানুর রহমান জানান, থানায় মামলা হয়েছে। আসামীদের গ্রেপ্তারের চেষ্ঠা অব্যহত রয়েছে।


SHARE THIS

0 Comments:

মতামতের জন্য ধন্যবাদ।