জাতীয় শিশু দিবস উপলক্ষে সংস্কৃতি বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের কর্মসূচি

shishu dibos,sishu dibas,sishu dibasa,sisudibas,sisudibasa,sishu dibasa speech,shishu dibos compile,sishu dibasa bhasana,shishudibasa bhasana,shishu,bissho shishu dibosh music video,shishu nirjaton,shishu dibos compile jayanta,sisu bhasana,shishu kishor somabesh,music,bijoy dibos 2018,michil saha,shishu dibos compile jayanta 13oct17,riyahd ahad,sings,boishkahi tv,bangladesh shishu academy,14th november,indira gandhi
আগামী ১৭ মার্চ জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ৯৯তম জন্মবার্ষিকী ও জাতীয় শিশু দিবস উদ্যাপন উপলক্ষে সংস্কৃতি বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের উদ্যোগে দেশের সকল জেলা ও উপজেলা পর্যায়ে কুইজ, চিত্রাঙ্কন প্রতিযোগিতা, আলোচনা সভা এবং সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়েছে। জেলা প্রশাসনের সার্বিক তত্ত্বাবধানে উপজেলা প্রশাসন, শিল্পকলা একাডেমি এবং জেলা, উপজেলার সকল দপ্তর-সংস্থার সমন্বয়ে দিনব্যাপী এ কর্মসূচি বাস্তবায়িত হবে।
দিবসের বিস্তারিত কর্মসূচির মধ্যে থাকছে সকালে স্কুল ও কলেজের শিক্ষার্থীদের অংশগ্রহণে কুইজ ও চিত্রাঙ্কন প্রতিযোগিতা এবং বিকালে স্থানীয় রাজনীতিবিদ ও বিশিষ্ট ব্যক্তিবর্গের উপস্থিতিতে বঙ্গবন্ধুর জীবনী নিয়ে আলোচনা সভা ও পুরস্কার বিতরণী এবং সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান।
কুইজ ও চিত্রাঙ্কন প্রতিযোগিতা অষ্টম শ্রেণি পর্যন্ত ক ও নবম হতে দ্বাদশ শ্রেণি পর্যন্ত খ- এ দু’গ্রুপে বিভক্ত হয়ে অনুষ্ঠিত হবে। চিত্রাঙ্কন প্রতিযোগিতার ‘ক‘ গ্রুপের শিক্ষার্থীরা বঙ্গবন্ধুর ওপর শুভেচ্ছা কার্ড অঙ্কণ করবে যার বিষয়বস্তু নির্ধারণ করা হয়েছে ‘বঙ্গবন্ধু ও বাংলাদেশ’ এবং ‘খ‘ গ্রুপের বিষয়বস্তু ‘বঙ্গবন্ধু ও মুক্তিযুদ্ধ’। অন্যদিকে কুইজ প্রতিযোগিতার বিষয়বস্তুও বঙ্গবন্ধু।
এ কর্মসূচি সফলভাবে বাস্তবায়নের জন্য সংস্কৃতি বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের পক্ষ হতে ইতোমধ্যে প্রতিটি জেলা ও উপজেলা প্রশাসনের অনুকূলে যথাক্রমে পঞ্চাশ ও পঁচিশ হাজার টাকা বরাদ্দ প্রদান করা হয়েছে এবং মনিটরিংয়ের জন্য মন্ত্রণালয়ের কর্মকর্তাবৃন্দকে জেলাভিত্তিক দায়িত্ব প্রদান করা হয়েছে। 

SHARE THIS

0 Comments:

মতামতের জন্য ধন্যবাদ।